মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন

করোনা মোকাবেলায় দেশরত্ন শেখ হাসিনার স্বপ্ন পূরণের পথে মাসুদ চৌধুরী

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি

ভাইরাস দহনে পুড়ে যাচ্ছে শহর-গ্রাম। ভীতিকর পরিবেশ বিরাজমান। কলের চাকা বন্ধ। দিনমজুরের কাজ নেই। অসহায়রা নির্বাক। খেটে খাওয়া মানুষের জীবন যুদ্ধ। দুর্বিসহ ক্রান্তিকাল জেকে বসেছে। এই সমাজে এই দেশে। কি হবে কি হবে, পরিনতিইবা কি? কিভাবে মোকাবেলা করবে মানুষ। ক্ষুধার যন্ত্রনায় মানব প্রাণ আজ ত্রাহি অবস্থা। করোনা ভাইরাস নামক অতিকায় ক্ষুদ্র জিবানুর আক্রমনে লন্ডভন্ড মানুষের জীবন যাত্রা। এই অবস্থায় কে করবে মোকাবেলা, কে করবে নিম্ন আয়ের মানুষের খাদ্যের যোগান? কে দিবে আশা ভরসা? এমন এক পরিস্থিতে খাদ্যের ফেরিওয়ালা মানবিক মানুষ হিসাবে হাজির হলেন রাজনীতিক মেহেদী মাসুদ চৌধুরী। তাঁর রাজনীতির কর্মক্ষেত্রে বাড়িয়ে দিলেন সহযোগিতার হাত। বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার করোনা ভাইরাস মোকাবেলার নির্দেশনা পাওয়া মাত্রই তিনি ঘরে বসে থাকতে পারলেন না। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় তিনি নিরন্ন, খেটে খাওয়া, দিনমজুর দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ালেন।

এ পর্যন্ত তিনি প্রায় ৪ হাজার মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন। মাঠের রাজনীতিতে তাঁর হাতে ক্ষুধার্ত মানুষের জন্য খাবারের প্যাকেট। নিছক সাধারণ ঘটনা নয়। মেহেদী মাসুদের মানবিক সহায়তা দানে ইতোমধ্যে তিনি সাধারণ মানুষের নজর কাড়তে সক্ষম হয়েছেন। আশা-ভরসা পেতে শুরু করেছেন অসহায় মানুষ। জনগনকে করোনা ভাইরাস থেকে সতর্ক ও সচেতন করার পাশাপাশি খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অব্যহত রেখেছেন। আজ শুক্রবারও তিনি প্রায় ৫’শ পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। সকাল ১০টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত উপজেলার পাতিবিলা, হয়াতপুর, এবিসিডি কলেজ পাড়া, চাঁনপাড়া, বাদেখানপুর, পেটভরা ও বাকপাড়ার কিছু অংশে দরিদ্র পরিবারে গিয়ে খাদ্যসামগ্রী চাল, ডাল, আলু, মিস্টি কুমড়া বিতরণ করেন রাজনীতিক উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী মাসুদ চৌধুরী।

এ সময় তাঁর সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজনিন নাহার পপি। এছাড়া স্বেচ্ছাসেবী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক শামীম রেজা, ফুড ফর লাইভের আহবায়ক মারুফ আহমেদ, সদস্য আল আমিন বাপ্পি, শরিফুল ইসলাম, মাহাবুর রহমান, রিয়াজ, মেহেদি, রহমত আলী, সালমান প্রমূখ।

খাদ্যসামগ্রী প্রাপ্ত রহমত আলী (৬৭), কুদ্দুস মিয়া (৫৫), কুলছুম বেগম (৫৭) বলেন, চৌধুরী ভাই যে উপকারটি করলেন তা ভুলবো না। কামকাজ করে আমাদের প্রতিদিনের সংসার চলে। নিজে বাঁচতে আর অন্যকে বাঁচাতে আমরা বাড়ীতে বসে আছি। কষ্টের মধ্যে আমাদের দিন যাচ্ছে। এ সময় খাদ্য পেয়ে আমার খুশি হয়েছি। চৌধুরী ভাইকে দোয়া করি, উনি যেন গরীব মানুষের পাশে থাকতে পারে।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ বিষয়ে আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, করোনা ভাইরাস মোকাবেলার জন্য বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের সিদ্ধান্তক্রমে সরকারিভাবে দরিদ্রদের মধ্যে খাবার বিতরণ করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর আহবানে সাড়া দিয়ে আমি আমার সাধ্যমত কর্মবিমুখ দরিদ্র পরিবারের খাবার বিতরণ করছি। আমি চেষ্টা করছি এই কার্যক্রম অব্যহত রাখতে। এ সময় তিনি দেশের সমস্যা ও সকল সংকট মুহুর্তে জনগনের পাশে থাকবেন বলে জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ