শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৭:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
প্রকাশ্য দিবালোকে সাভার ও আশুলিয়ার ২ যুবক খুন যৌতুকের বলি আনজিলা আক্তার! জামালপুরে ভ্যান চালক শিশু সম্পার পরিবারের দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানেও বন্ধ হচ্ছে না অবৈধ জাল পাঁচ হরিণ শিকারী আটক করেছে বন বিভাগ জলবদ্ধতা নিরসনে দুই চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে অবৈধ নেটপাটা অপসারণ অপরাধ ডটকমের সাভার প্রতিনিধির মায়ের ইন্তেকাল বগুড়া পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী জনপ্রিয়তার শীর্ষে আমিনুল ফরিদ চাঁপাইনবাবগঞ্জে রেজিস্ট্রি অফিসের অনিয়মের বিরুদ্ধে সনাসের মানববন্ধন মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সাভারে যুবলীগের বিক্ষোভ মিছিল

করোনা সুরক্ষা সামগ্রীর অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

জামালপুর প্রতিনিধি

ইসলামপুরে করোনা সুরক্ষা সামগ্রীর অর্থ আত্মসাত ও ত্রান বিতারনে অনিয়মের অভিযোগে পৌর মেয়র আব্দুল কাদের সেকের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার ৫ মে ইসলামপুর উপজেলা পরিষদ গেটে সংবাদ সম্মেনেটি অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে কাউন্সিলরদের পক্ষে প্যানেল মেয়র অংকন কর্মকার লিখিত বক্তব্যে জানান, করোনা ভাইরাস বিস্তার প্রতিরোধকল্পে মাননীয় মন্ত্রী অভিপ্রায় অনুযায়ী ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের বার্ষিক উন্নয়ন বাজেটের বিশেষ থোক ও উপ থোক বরাদ্ধ হতে ইসলামপুর পৌরসভার অনুকূলে জীবনা নাশক ও সুরক্ষা সামগ্রী ডেটল, ব্লিচিং পাওডার, ফিনাইল,মাস্ক, গ্রাভস্, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও সাবান ইত্যাদি ক্রয়ের জন্য দুই দফায় সর্বমোট তিন লক্ষ টাকা বরাদ্ধ হয়। মেয়র উক্ত টাকা সঠিকভাবে ব্যায় না করে আত্মসাত তুলেছেন। কোথায় কোন কাজ এই সরকারি বরাদ্ধ অর্থ ব্যায় করা হয়েছে পৌর সভার কোন কাউন্সিলর জানেন না। করোনা পরিস্থিতিতে কাউন্সিরবৃন্দ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। তাদেরকে মাস্কসহ কোন স্বাস্থ্য সুরক্ষার সামগ্রী দেয়া হয়নি।

এছাড়াও সংবাদ সম্মেলনে আরো বলা হয়, করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউনের ফলে মানুষ যখন দিশেহারা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রশাসনিক সহায়তায় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌছানোর জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন। তখন আমাদের মেয়র মহোদয় চুপচাপ বসে থেকে প্রশাসনের সঙ্গে কোন রকম যোগাযোগ না করায় ত্রাণ বঞ্চিত পৌর এলাকার বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ কর্মহীন হওয়ায় জনগণের ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এমতাবস্থায় আমরা কাউন্সিলরবৃন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা চেয়ারম্যানেরর নিকট ত্রাণের জন্য আবেদন করি। পরে উপজেলা প্রশাসন তড়িৎ গতি ব্যবস্থায় ত্রাণ বিতরণ করায় জনগণের ক্ষোভের অবসান ঘটে।

এছাড়াও সাংবাদিকদের আরো অভিযোগ করা হয়। প্রতি বছর বিশেষ উৎসবে দুস্থ্যদের দেয়ার জন্য কাউন্সিলরদের মাত্র ৬০টি ভিজিএফ স্লিপ দিয়ে ৩শ স্লিপের স্বাক্ষর নেয়া হয়। পৌরসভার কোন বরাদ্ধই সুষম বন্টন করা হয় না। সেচ্ছাচারিতাভাবে নিজের ইচ্ছেমতো কাজ করেন পৌর মেয়র। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে পৌরবাসীর সুরক্ষার জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ যথাযথ ভাবে ব্যয় না হওয়ার ব্যাপারে ও আত্মসাতকৃত অর্থ উদ্ধারের প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন কাউন্সিলরবৃন্দ।

সংবাদ সম্মেলনে পৌর সভার প্যানেল মেয়র অংকন কর্মকার, কাউন্সিলর মোহন, তারাভানু, রাসেল মন্ডল, আব্দুল আলিম, শহিদুল্লাহ, নূরুল ইসলাম চুন্নু, মর্জিনা বেগম ও কহিনুর বেগম, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিতি ছিলেন।

অপরদিকে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে মেয়র আব্দুল কাদের সেক জানান, ত্রান বিতরনসহ কোন অভিযোগই সত্য নয়। আমার জনপ্রিয়তায় ঈষান্বিত হয়ে একটি মহল ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে।। সরকার থেকে যা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে তার চেয়ে কয়েকগুণ বেশি অর্থ ব্যয় করা হয়েছে। সরকারি অর্থের সকল হিসাবই আমার কাছে রয়েছে।

তিনি আরো জানান, ডিসেম্বর মাসেই নির্বাচন। অভিযোগকারী নিজেই মেয়র প্রার্থী। তাই দেশের দুর্যোগময় এ সময়ে তিনি অপপ্রচার শুরু করেছেন।

এদিকে সংবাদ সম্মেলন পর ইসলামপুর পৌর মেয়রের বিরূদ্ধে প্যানেল মেয়ের সংবাদ সম্মেলন বানানোয়াট ও ভিত্তিহীন বলেন সম্মেলনে উপস্থিত ছয় পৌর কাউন্সিলর। সংবাদ সম্মেলনের পর ৫ মে মেয়র আব্দুল কাদের সেকের নিকট কাউন্সিলরা উপস্থিত হয়ে জানান, আমাদেরকে ইউএনও সাহেব ডেকেছেন এমন কথা বলে উপজেলায় ডেকে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে যায় প্যানেল মেয়র। প্যানেল মেয়র আামাদের সাথে প্রতারণা করেছে। তারা পৌর মেয়রের নিকট এ ব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ