সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ০৮:১৮ পূর্বাহ্ন

ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

রিয়াজ মোল্ল্যা, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে অসহায় হতদরিদ্রদের সরকারি বিভিন্ন ভাতা কার্ড পাইয়ে দেবার প্রলোভন দেখিয়ে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এক মহিলা ইউপি সদস্য। তিনি হলেন উপজেলার ৮নং মালিয়াট ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য শাহিনা বেগম।

তার এহেন অপকর্মের বিচার চেয়ে ভুক্তভোগী কমেলা বেগম রোববার কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর এক লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

প্রতারনার শিকার ওই গ্রামের ১০ জন ভুক্তভোগী স্বাক্ষরিত অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করেছেন, ওই মহিলা সদস্য শাহিনা বেগম নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন সময়ে এলাকার মানুষের সাথে প্রতারনা করে আসছেন। তিনি তার ওয়ার্ডের পাঁচকাহুনিয়া গ্রামের অসহায় দুঃস্থ্য নারীদের বিধবা ভাতা, পুরুষদের বয়স্কভাতা, পঙ্গুভাতা ও সরকারি অ-গভীর নলকুপ পাইয়ে দেবার কথা বলে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। এছাড়াও ওই গ্রামের হতদরিদ্র মহিলা ফরিদা বেগমের ১৫ মাসের ভিজিডির চাল উত্তোলন করে আতœসাৎ করেছেন। টাকা নিয়ে সে গত এক দেড় বছর ধরে ভুক্তভোগীদের সাথে নানা তালবাহানা করছিল। সর্বশেষ বাধ্য হয়ে অসহায় ক্ষতিগ্রস্থরা কালীগঞ্জ ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।

ইউপি সদস্য শাহিনা বেগম তার বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়ে বলেন, অভিযুক্তদের অনেকেরই তিনি চিনেন না। পরিষদের কাজ কর্ম তার স্বামী ফসিয়ার মৃধাই বেশি করেন। এর কিছু সময় পরই আব্দার রহমান নামে শাহিনা বেগমের এক প্রতিবেশি মোবাইল করে সাংবাদিকদের জানান, মহিলা সদস্য নির্দোষ। সে কোন টাকা নেয়নি। তার নামে অভিযোগ করে একটি পক্ষ হয়রানীর চেষ্টা করেছে।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সূবর্না রানী সাহা জানান, দুঃস্থ অসহায়দের কার্ড দেবার কথা বলে এক মহিলা ইউপি সদস্যর বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তিনি অভিযোগের তদন্তপূর্বক দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নিবেন বলে জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ