সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ০১:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
গাজীপুর মহানগরের ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী আব্দুস সোবাহান সকলের দোয়া চায় ব্যাংকে ঋণ থাকা অবস্থায় ব্যবসায়ীর মৃত্যু: ৯ বছর পর চাপে ভুক্তভোগী পরিবার মাগুরায় ৮ দিন পর যুবকের মস্তকবিহীন লাশের মাথা ও পা উদ্ধার গাজীপুরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্কুল কলেজ খোলার জন্য মানববন্ধন। মাগুরায় পরিত্যক্ত পুকুরে মিললো যুবকের টুকরো টুকরো লাশ বশেমুরবিপ্রবিতে শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ, স্বেচ্ছায় অব্যহতি গাজীপুরে ভোগরা বাইপাসে স্ট্রোকে আম বিক্রেতার মৃত্যু গাজীপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় গার্মেন্টস শ্রমিকের মৃত্যু শেরপুরে নকল সোনার বারসহ ২ প্রতারক গ্রেফতার কাল থেকে ৭ দিনের জন্য কঠোর লকডাউন চাঁপাইনবাবগঞ্জে

কালীগঞ্জে সামাজিক দূরত্ব না মেনেই চলছে লেগুনা গাড়ি

রিয়াজ মোল্ল্যা, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

গণপরিবহন চলাচলের ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব মানা হচ্ছে না লেগুনায়। একজন অন্যজনের গা ঘেঁষে বসা,মুখে মাস্ক- ব্যবহার না করার পুরনো চিত্র দেখা গেছে এই গণপরিবহনে।

রোববার ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা যায়। ঝুঁকিপূর্ণ গণপরিবহনের তালিকায় রয়েছে লেগুনা। তুলনামূলক ছোট আকারের এই গণপরিবহনটির মাত্রাতিরিক্ত গতিতে ছুটে চলা ও অপক্ক চালক দিয়ে গড়ি চালানোর অভিযোগ রয়েছে পরিবহনটির বিরুদ্ধে। টানা ৬৭ দিন বন্ধ থাকার পর সরকারের পক্ষ থেকে গণপরিবহন চলাচলের অনুমতি দেয়া হয়েছে। দীর্ঘ ছুটির পর স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে গণপরিবহন চলাচলের অনুমতি দেয়া হয়েছে । তবে সে দূরত্ব মানা হচ্ছে না লেগুনায়।

প্রতিটি লেগুনায় চালকের পাশের আসনে দুইজন। পেছনে দিকে দুই পাসে পাঁচ জন করে দশ জন, মোট ১২ জন যাত্রী পরিবহন উঠানো হচ্ছে। এতে প্রতি জনের মধ্যে এক ফুটতো দুরের কথা চার আঙ্গুলেরও দূরত্ব থাকছে না। বসছেন মুখোমুখি। ফলে স্বাস্থ্যবিধি বা সামাজিক দূরত্বের কিছুই মানা হচ্ছে না।

আবার যাত্রীর মধ্যেও অসচেতনায় ঘাটতি নেই। কালীগঞ্জ থেকে বারবাজার ও ঝিনাইদহ রুটে চলাচলকারী পরিবহনের কয়েকটি লেগুনায় মুখে মাস্ক ছাড়া যাত্রী চলাচল করতে দেখা গেখে। হাতেগোনা দুই একজনের মুখে মাস্ক থাকলেও বাকিদের মুখে নেই।

পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে পরিবহনটির একজন চালক বলেন, আমরাও জানি সামাজিক দুরত্ব মানা হচ্ছে না। কিন্তু কি করার আছে। লেগুনার বডিই ছয় ফুটের। এর মধ্যে তিন ফুট দূরে দূরে লোক বসায় কি করে ? ওই হিসাবে যাত্রী নিতে গেলে এক টিপে চার জনের বেশি যাত্রী নেওয়া যায় না। যাত্রীদের অসাবধানতার কথা তুলে ধরে তিনি আরও বলেন, আমরা কি যাত্রীদের মাস্ক কিনে দেব ? এরা ভয় পায় না, মানে না। সকাল থেকেই দেখছি বহু লোকের মুখে মাস্ক নাই। এইখানে আমাদের কি করার আছে।

এছাড়া এতদিন লকডাউন চললেও তার মধ্যেই কালীগঞ্জে রুটে চলাচল করেছে লেগুনা। সামাজিক দূরত্ব না মেনে চালকের আসনের পাশে দুইজন। পেছনে আসনে মুখোমুখি যাত্রী নিয়ে চলাচল করছে এই পরিবহনটি। এতে করে বাড়ছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঝুঁকি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ

Spoken English কোর্স