শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০১:২০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রপ্তানি আয়ের অন্যতম উৎস হবে আম: কৃষিমন্ত্রী খাবার না থাকলে আমাকে জানান, আমি বাড়ি বাড়ি খাবার পৌছে দিব: এমপি আনার অমুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফনের অভিযোগ স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের কমলগঞ্জে হিন্দু ছাত্র পরিষদের দ্বিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত ময়মন‌সিং‌হের শম্ভুগ‌ঞ্জে প্রায় শতা‌ধিক দোকানে ধর্মঘট শেরপুরের শ্রীবরদীতে ১’শ পিস ইয়াবাসহ যুবক গ্রেফতার সাংসদ কন্যা ডরিন এর নেতৃত্বে রোজা রেখেও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী এক কৃষকের ধান কেটে দিয়েছে ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ করোনা সঙ্কটে আবারো অসহায় মানুষের পাশে সাংসদ কন্যা ডরিন সাভারে দুই নারী ধর্ষণের শিকার, আটক ২ ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে তিস্তায় ডুবে একজনের মৃত্যু

খুলনায় ঈদ কেনাকাটায় বাজারে উপছে পড়া ভীড়, উপেক্ষিত সরকারি নির্দেশনা

তুহিন আহদেম, খুলনা

রাত পোগালেই ঈদ, তাই শেষ মুহুর্তে ঈদের কেনা কাটায় তিলধরার ঠাঁই নেই খুলনার শপিংমল, মার্কেটে। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পুরুষের পাশাপাশি মহিলাদের উপচেপড়া ভীড় লক্ষ্য করা গেছে। করোনা প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি, সুরক্ষা দুরত্ব বা মার্কেট খোলা শর্ত পালনের বালাই নেই।

খুলনা শহর ঘুরে দেখা যায় ডাকবাংলো কেন্দ্রিক ১১টি মার্কেট ও পার্শ্ববতী এলাকার দোকানপাটে নারী ও শিশুরা প্রবেশ করতে পারবে না শর্তে খুলনার সব মার্কেট খুলে দেওয়া হলেও নারী ও শিশুদের ভীড় ছিল প্রচুর ।অধিকাংশ ক্রেতাই মানছেন না নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব। চালু হওয়া বিপণী‌বিতানগুলোতে ভিড় করছেন ক্রেতারা। স্বাস্থ্যবিধি না মেনে দোকানি ও কর্মচারীরা ক্রেতাদের পণ্য দেখাচ্ছেন।

নিয়মনীতি না মেনে প্রতি‌টি মার্কেটের প্রবেশপথ দিয়ে গাদাগাদি করে ঢুকছেন ক্রেতারা। নিরাপদ দূরত্ব বজায় তো দূরের কথা, অনেকের মুখে নেই মাস্কও। নিরাপত্তার স্বার্থে মার্কেটের গেটে নামমাত্র হাত ধোঁয়ার ব্যবস্থা থাকলেও সে‌দিকে ভ্রুক্ষেপ নেই কারো।

খুলনায় ১৪মে থেকে বন্ধের পর ১৯মে থেকে পুনরায় খুলে দেয়া হয় শপিংমল। এর আগে প্রায় দেড়মাস বন্ধের পর ১০মে খোলা হয়েছিল মার্কেট, স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় বন্ধ করা হয়েছিল মার্কেট।

করোনা পরিস্থিতিতে ঢাকা, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও ঝুঁকি নিয়েই খুলনায় মার্কেট খুলছে। আজ রবিবার (২৪ মে) সকাল থেকেই মার্কেটে খোলার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে নারী পুরুষের ভিড়।

জানাগেছে, খুলনা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত শর্তসাপেক্ষে মার্কেটের দোকান খোলা রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে ফুটপাতে হকার ও অস্থায়ী দোকান বসানোর ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

নগরীর জলিল সুপার মার্কেট, খুলনা শপিং কমপ্লেক্স, খুলনা নিউমার্কেট, আখতার চেম্বার, ডাকবাংলা মোড়, বড় বাজার ও নিক্সন মার্কেট সর্বত্রই ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ

Spoken English কোর্স