গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে আল মদিনা ডিজিটাল ক্লিনিক এন্ড ডায়গনোস্টিক সেন্টারের প্যাড নিয়ে ডাঃ মোঃশরিফুল আলম (সুমন) বিভিন্ন মানুষকে ভুয়া জাল সনদ দিয়ে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে, করছে রমরমা ব্যবসা। ভুয়া সনদ দিয়ে মানুষের মাঝে বিভান্তি করার অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, উপজেলার শাখাহার ইউনিয়নের গ্রামের ফাতেমা বেগমের সাথে তার স্বামীর পরিবারের মনোমালিন্য হলে বিষয়টি নিয়ে মামলা হয়। স্বামী কে ফাসাতে ফাতেমা মারপিটে আহত প্রমানের জন্য ডাক্তার শরিফুল আলম সুমনের শরানপন্ন হয়। এদিকে ডাক্তার সুমন অর্থের বিনিময়ে ফাতেমা কে অসুস্থ দেখিয়ে আল মদিনা ডিজিটাল ক্লিনিক এন্ড ডায়গনোস্টিক সেন্টারে ভুয়া ভর্তি দেখায় এবং জাল চিকিৎসা সনদ দেয়। স্বামী বিষয়টি টের পেয়ে গোবিন্দগঞ্জে আল মদিনা ডিজিটাল ক্লিনিক এন্ড ডায়গনোস্টিক সেন্টারে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন ডাক্তার সুমন উক্ত ক্লিনিকের ভুয়া প্যাড ব্যবহার করে জাল চিকিৎসা সনদ দেন।

এ বিষয়ে মদিনা ডিজিটাল ক্লিনিক এন্ড ডায়গনোস্টিক সেন্টারের পক্ষ থেকে প্রত্যয়ন পত্র দেয়। ডাক্তার শরিফুল আলম সুমনের বিরুদ্ধে ভুয়া জাল চিকিৎসা সনদ দেয়ার অভিযোগ সুষ্ঠু তদন্ত পুর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনে উদ্ধতন কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী ও এলাকাবাসী।

@ শাহীন খন্দকার গাইবান্ধা প্রতিনিধি