শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০৫:০০ অপরাহ্ন

ঝিনাইদহে টিসিবির পেঁয়াজ কান্ড

রিয়াজ মোল্যা, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

জনপ্রতি ১২ কেজি পেঁয়াজ নিতে হবে। নইলে তেল, চিনি ও ডাল দেওয়া যাবে না। টিসিবির পন্য বিক্রয়ে ৪ শত ৪০ টাকার প্যাকেজ করা হয়েছে। ওই প্যাকেজে বাধ্যতামুলক ১২ কেজি বিদেশি পিঁয়াজ, ১ কেজি চিনি, ১ কেজি ডাল ও ২ লিটার সয়াবিন তেল নিতে হবে।

শুক্রবার বিকালে ট্রাকে করে কালীগঞ্জে টিসিবির পন্য বিক্রি করতে আসা ঝিনাইদহের মানিক ট্রেডার্স নামে ডিলারের লোকজন এমন ঘোষনা দিয়ে এক ”পেয়াজ” কান্ড ঘটিয়েছেন। তবে কিছু সময় পর এ নিয়ে ক্রেতারা বিষয়টি কালীগঞ্জ ইউএনওকে অবহিত করে, বিষয়টি আচ করতে পেরেই অল্প কিছু পন্য বিক্রি করে তারা ট্রাক নিয়ে চলে যান। এভাবেই টিসিবির ডিলাররা পন্য বিক্রিতে সাধারন ক্রেতাদের সাথে প্রতারনা করে চলেছেন।

ভ’ক্তভোগীদের মধ্যে ফিরোজ আহম্মেদ নামে এক ক্রেতা জানান, শুক্রবার বিকালে কালীগঞ্জ শহরের বৈশাখী মোড়ে টিসিবির পন্য বিক্রি করতে আসেন ঝিনাইদহের ডিলার মানিক ট্রেডাস। এ সময় তারা প্রতিজন ক্রেতাকে বাধ্যতামুলক ১২ কেজি পিঁয়াজ নিতে হবে বলে জানায়। এবং যদি কেহ পেঁয়াজ না নেয় তাহলে তাদের অন্নান্য পন্য তেল, চিনি ও ডাল বিক্রি করবে না বলে ঘোষনা দেয়। এসব কথা শুনে উপস্থিত ক্রেতাদের মধ্যে অনেকেই পন্য না নিয়েই খালী হাতে ফিরে যায়। কিন্তু কেউ কেউ পন্য না কিনতে পেয়ে ডিলারের লোকজনের সাথে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। এমন পরিস্থিতি ও জটলা দেখে সেখানে এগিয়ে আসেন গনমাধ্যমের এক কর্মী।

তিনি তাৎক্ষনিক ওই বিষয়টি কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ফোন করে জানতে পারেন, জনপ্রতি ৫ কেজি পন্য বিক্রির নিয়ম রয়েছে। পন্য বিক্রয়ে প্যাকেজ বা বাধ্যতামুলক করা হয়নি। এরই মধ্যে প্রশাসনকে অবহতির বিষয়টি আচ করতে পেরে সু-চতুুুর ডিলারের লোকজন তড়িঘড়ি করে তাদের কিছু পন্য ক্রেতাকে দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চলে যান।

এমন বিষয়টি নিয়ে টিসিবির ডিলার ঝিনাইদহের মানিক ট্রেডাসের স্বতÍাধিকারী শরিফুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি জানান, পেঁয়াজ বিক্রি না হওয়াতে গোডাউনে থেকে নষ্ট হচ্ছে। এজন্য আমরা ক্রেতাদের পেঁ^য়াজ নিতে ৪৪০ টাকার প্যাকেজ করেছি। আর ঝিনাইদহ শহরের টিসিবির ডিলার হয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা শহরে পন্য বিক্রি করার অনুমতি আছে কি ? এমন প্রশ্নের উত্তওে তিনি বলেন, টিসিবির কর্মকর্তা রানা সাহেব তাকে বাইরের উপজেলাতে গিয়ে পন্য বিক্রির অনুমতি দিয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সূবর্না রানী সাহার সাথে কথা বললে তিনি জানান, একজন ক্রেতার নিকট ৫ কেজির বেশি টিসিবির পন্য বিক্রি করা যাবে না। প্রতি ক্রেতাদের ১২ কেজি পিঁয়াজ নিতে হবে এমন কোন নিয়ম নেই। এমন অনিয়মের বিষয়ে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নিবেন বলে জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ

Spoken English কোর্স