বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০৭:৩৪ অপরাহ্ন

ঝিনাইদহে দু-গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ বাড়ীঘর ভাংচুর, আহত ১০

রিয়াজ মোল্ল্যা, (ঝিনাইদহ) জেলা প্রতিনিধিঃ

গরু বিক্রির পাওনা টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে দু-গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ১০/১২ জন আহত হয়েছে। প্রায় দেড় ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষ চলাকালীন সময়ে ৫/৬ টি বাড়ী ভাংচুর করা হয়। সংঘর্ষে আহতদেরকে কালীগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার বিকালে উপজেলার সিংদহ আমতলা বাজারে পারশ্রীরামপুর ও আলাইপুর (আলুকদিয়া) গ্রামবাসীর মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

সুন্দরপুর দূর্গাপুর ইউনিয়নের ওয়ার্ড মেম্বর তোহিদুল ইসলাম জানান, গরু বিক্রির পাওনা টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে উপজেলার আলোকদিয়া গ্রামবাসীর সাথে পাশর্^বর্তী শ্রীরামপুর গ্রামবাসীর মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। ওই বিরোধ মেটাতে তিনি মঙ্গলবার সকালে দু-গ্রামবাসীকে নিয়ে এক মিমাংশা করে দেন। কিন্তু পরদিন বুধবার বিকালে আবারো আলাইপুর (আলুকদিয়া) গ্রামের লোকজন শ্রীরামপুরে গিয়ে একজনকে ধরে নিয়ে যাবার চেষ্টা করলে গ্রামবাসীরা ধাওয়া করে। একপর্যায়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়াটি সংঘর্ষে রুপ নেয়। এ সময় দু-গ্রামের মানুষ লাঠিসোঠা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, প্রায় দেড় ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে সাবেক মেম্বর আশরাফুল ইসলামসহ ৫/৬ জনের বাড়ীঘর ভাংচুর করা হয়। সংঘর্ষে পারশ্রীরামপর গ্রামের বায়েজিদ ও জিয়াউর রহমানসহ উভয় পক্ষের অন্তত ১০/১২ জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে দু’জনকে কালীগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ খবর পেয়ে থানা পুলিশ ও সেনাবাহিনীর টিম ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহফুজুর রহমান মিয়া জানান, দু-গ্রামবাসীর মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার খবর পেয়ে সেখানে আমিসহ পুলিশের একটি টিম উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রে আনি। এরপর উভয়পক্ষই পালিয়ে যায়। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত। এ ঘটনায় থানাতে এখনো কেউ কোন অভিযোগ দেয়নি বলে জানান তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ