সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
খালিয়াজুরীতে ৪০ লিটার মদ জব্দ, নারীসহ আটক ২ বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে মিয়ানমার আন্তরিক নয়: পররাষ্ট্র সচিব নান্দাইলে সরকারী ভাতা পেতে ২৪ হাজার প্রার্থীর আবেদন শিবগঞ্জে রাস্তার বেহাল অবস্থা শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মদিনে সাভারে শিশু শিক্ষার্থীদের মাঝে বৃত্তি প্রদান নওগাঁয় বেড়িবাঁধ দখল করে ভবন নির্মানের অভিযোগ খুলনায় গ্রিন বেল্টে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর বৃক্ষরোপন ময়মনসিংহে জেএমবির ৪ সদস্য গ্রেফতার জামালপুরে রিকশা চালক রাসেল হত্যা মামলায় ২ সহোদরের মৃত্যুদণ্ড, ৭ জনের যাবজ্জীবন ন্যায্য পাওনা পরিশোধের দাবীতে জামালপুরে সম্মিলিত ব্যবসায়ী জনতা ঐক্য পরিষদের মানববন্ধন

তালতলীতে আইসোলেশন ইউনিট প্রস্তুত

মো.মিজানুর রহমান নাদিম,বরগুনা প্রতিনিধি

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মানুষের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি না হওয়ায় বরগুনার তালতলী ২০শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের পাশে নতুন ভবন উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্পনার কার্যালয়ে আইসোলেশন ইউনিট প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে, প্রায় তিন লাখ মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার লক্ষে সরকার ২০শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল গড়ে তুলছে।সচেতনা বৃদ্ধির লক্ষে গত (১৮ই)মার্চ বিভিন্ন ভাবে উপজেলা পরিষদের হল রুমে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে প্রস্তুতি সভা হয়েছে।করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মনিটারিং সেল গঠন করা হয়েছে।উপজেলা পর্যায়ে কমিটি গঠন।উপজেলা পর্যায়ে মোট ৬টি আইসোলেশন ওয়ার্ড স্থাপন করার কথা থাকলে ও নারী পুরুষের জন্য পৃথকভাবে আপাতত ২টি করে শয্যা আলাদা রাখা হয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্যালয়ে সিড়ি বেয়ে ওঠার সময় এ-ফোর সাইজের একটি কাগজে দরজায় আঠা দিয়ে লাগানো রয়েছে নোভেল করোনা (আইসোলেশন ইউনিট) এবং দুই তলার পূর্ব-দক্ষিণ দুইটি রুমের ভিতরে প্রবেশ করে দেখা যায় অপরিছন্ন অবস্থায় বেডের বালিশের কভার ময়লা,নেই কোনো রুমের সামনে কোনো পর্দা,বিছানার চাদর মাত্র দুই রুমে আছে আর কোনো সরঞ্জাম নেই। অস্বাস্থ্যসম্মত বাথরুম রয়েছে একটি।

তালতলী থানার (ভারপ্রাপ্ত) কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান জানান,কোনো ব্যক্তি যদি কোভিড-১৯ আক্রান্ত দেশ থেকে ফেরেন তাকে হোম কোয়রান্টাইনে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়। সম্প্রতি বিদেশ ফেরত ৪৪ জনের মধ্যে ৩৯ জনকে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বাকী ৫জন এ উপজেলার বাইরে রয়েছেন।

উপজেলা মেডিকেল অফিসার মো. ফাইজুর রহমান জানান,কোনো রোগীর হাঁচি-কাশি স্বাভাবিক ভাবে কারো মধ্যে জীবানুর উপস্থিতি ধরা পড়ে আবার ধরা না পড়লে ও নমুনা থেকে থাকে তাকে আলদা ভাবে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে।২০শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটি এখন ও আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ডেপুটেশনের নিয়মে চলে।করোনা ভাইরাস থেকে এড়াতে হাসপাতালের কোনো সরঞ্জামের ব্যবস্থা নেই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সহযোগীতায় আইসোলেশন ইউনিট চালু করেছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব সেলিম মিঞা বলেন,মানুষের মাঝে করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক দূর করতে সচেতনা সম্পর্কে অবগত করা হয়।উপজেলা প্রশাসের পক্ষ থেকে সার্বক্ষনিক নজরদারি রাখা হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ