বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ন

পিরোজপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত পলাতক স্বামী গ্রেফতার

আব্দুল্লাহ হক,বরিশাল ব্যুরো ও মো.মিজানুর রহমান নাদিম,বরগুনা প্রতিনিধি

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় স্ত্রী হত্যার দায়ে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামী আবুল কালাম (৪৮)কে গ্রেফতার করেছে মঠবাড়িয়া থানা পুলিশ। শনিবার দুপুরে পার্শবর্তী বরগুনা জেলার তালতলী থানার কাজিরখাল এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। আবুল কালাম মঠবাড়িয়া উপজেলার বড়শৌলা গ্রামের ইউনুস আলী হাওলাদার এর ছেলে। নিহত গৃহবধূ জেসমিন আক্তার দুই সন্তানের জননী।

থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, আবুল কালাম বিয়ের পর থেকে স্ত্রী জেসমিন বেগমকে যৌতুকের দাবীতে মারধর করত। ২০১৫ সালের ১২ সেপ্টেম্বর শৌলা গ্রামের আবুল কালাম যৌতুকের দাবি তুলে দুই সন্তানের জননী জেসমিন বেগমকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। পরে তাঁকে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক ও পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা করানো হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে আহত গৃহবধূকে গত ১৪ সেপ্টেম্বর ’১৯ রাতে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে ফরিদপুরের ভাঙা নামক স্থানে মারা যান।
এ ঘটনায় ১৫ সেপ্টেম্বর ’১৯ নিহত জেসমিনের ভাই সাইফুল হক বাদী হয়ে আবুল কালামকে আসামি করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি হত্যা মামলা করে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত আবুল কালাম পলাতক থাকে। সে পুলিশ ও মামলা থেকে রেহাই পেতে গ্রাম ছেড়ে বরগুনার তালতলী উপজেলার কাজিরখাল গ্রামে দ্বিতীয় বিয় করে নতুন ঘর সংসার পেতে আত্মগোপন করে।

তৎকালীন এসআই মো. আব্দুল হক এ মামলাটি তদন্ত শেষে ওই বছরের ৪ নভেম্বর ’১৯ আসামীর বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল করে।
গত ২৯ অক্টোবর ’১৯ পিরোজপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্র্যাইব্যুনালের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মিজানুর রহমান মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে পলাতক আসামী আবুল কালামকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ড কর্যকরের আদেশ দেন এবং একই সাথে ১ লক্ষ টাকা অর্থদন্ডে দন্ডিত করেন।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মাসুদুজ্জামান স্ত্রী হত্যার দায়ে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামী আবুল কালামকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, রোববার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ

Spoken English কোর্স