বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৮:২৪ অপরাহ্ন

নওগাঁর রাণীনগরে চালু হয়েছে টেলিমেডিসিন সেবা

রহিদুল ইসলাম রাইপ, নওগাঁ প্রতিনিধি

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলায় ফোন করলেই প্রাথমিক ও জরুরী চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন করোনা ভাইরাসের কারণে ঘরবন্দি থাকা মানুষ।

টেলি মেডিসিন কার্যক্রম “২৪ ঘন্টা ডাক্তার : হ্যালো ছাত্রলীগ বলছি” সেবাটি চালু করেছে রাণীনগর উপজেলা ছাত্রলীগ।

উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান ৬ জন সদস্য যারা দেশের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে অধ্যায়নরত তাদের মাধ্যমে এই টেলি মেডিসিন সেবা প্রদান করা হচ্ছে। যারা ২৪ ঘন্টা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রোগীর সমস্যা অনুসারে তাৎক্ষণিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করছেন।

ঘরবন্দি থাকা উপজেলার যেকোন প্রত্যন্ত এলাকার মানুষরা ফেসবুকে ও প্রচারপত্রের মোবাইল ফোন নম্বরে ফোন দিয়ে সরাসরি চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে তার সমস্যার সমাধান পেতে পারেন।

শুধুমাত্র রাণীনগর উপজেলা নয়, নওগাঁ জেলাসহ দেশের যেকোন প্রান্ত থেকে যে কেউ ০১৭৬৮৫৮১৮৫৭, ০১৭৪৪৫৬০১০৪, ০১৭১৭০২২৩২৭, ০১৬৮৫২৬৭২২৬, ০১৩১১৪৯৯০৭৫ ও ০১৭৭৭৮৩১৭১০ নম্বরে সরাসরি চিকিৎসকদের সঙ্গে ফোনে কথা বলে যেকোন রোগের প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা নিতে পারবেন।

উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান হাসান বলেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান মেডিকেল পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে এই সেবা প্রদান করা হচ্ছে। করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতি যত দিন স্বাভাবিক না হচ্ছে ততদিন এই কার্যক্রম চালু রাখা হবে। এতে করে মানুষের ব্যাপক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। এমন কি যেসব গরীব, অসহায়, দুঃস্থ ও ছিন্নমূল মানুষদের ওষুধ কেনার সামর্থ নেই আমরা তাদেরকে চিকিৎসা সেবার পাশাপাশি আমাদের অর্থায়নে ওষুধ কিনতে সাধ্যমতো আর্থিক সহযোগিতা দেওয়ার চেষ্টাও করছি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. কে এইচ এম ইফতেখারুল আলম খাঁন (অংকুর) বলেন, ছাত্রলীগের এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। দেশব্যাপী যদি এই কর্মকান্ড শুরু করা হয় তাহলে করোনা ভাইরাস অনেকটাই প্রতিকার করা সম্ভব হবে কারণ কাউকে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা নিতে আর হাসপাতালে আসতে হবে না। যদি প্রয়োজন হয় এ বিষয়ে আমি ছাত্রলীগকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করবো।

নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইসরাফিল আলম বলেন, করোনা ভাইরাস সংকটের প্রথম থেকেই মাঠে থেকে বিভিন্ন মানবিক কর্মকান্ড করে আসছে ছাত্রলীগের কর্মীরা। তাদের চালু করা এই কার্যক্রম ইতিমধ্যেই মানুষের মাঝে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। এছাড়াও যাদের ওষুধ কেনার সামর্থ নেই তাদেরকে সাধ্য অনুযায়ী আর্থিক সহযোগিতাও করা হচ্ছে। তবুও আপনারা নিজের ও আশপাশের মানুষদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে কেউ অযথা ঘরের বাইরে বের হবেন না। আসুন আমরা সবাই এক হয়ে করোনা বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে বিজয় ছিনিয়ে আনি। এ জন্য প্রথমে সবাইকে সচেতন হতে হবে।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ

Spoken English কোর্স