বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৭:৪৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার বিচার চেয়ে বগুড়ায় মানববন্ধন সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে হাতীবান্ধায় মানববন্ধন সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যার বিচার দাবিতে মানববন্ধন জাবির আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা হল ছেড়েছেন, সব ধরনের পরীক্ষা স্থগিত অবৈধ বালুর ব্যবসায় দূর্বিষহ টোরামুন্সিরহাটের জনজীবন সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানিয়েছে বিএমএসএফ বগুড়ায় বিদেশি পিস্তল গুলি সহ অাটক ১ সাংবাদিক হিসেবে আপনিও যোগ দিন অপরাধ ডটকমে সাংবাদিক হত্যার বিচার দাবিতে কাল ঢাকাসহ দেশব্যাপী প্রতিবাদ সমাবেশ লালমনিরহাটে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল ব্যাংক কর্মকর্তা নিহত

পটুয়াখালীতে ঘুর্ণিঝড় আম্পানের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড প্রাইমারি স্কুল

আব্দুল আলীম খান, পটুয়াখালী প্রতিনিধি

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন জানিয়ে দ্রুত বিধস্ত বিদ্যালয়টি নতুন ভাবে পাকা ভবন নির্মাণ করে কোমলমতি শিশুদের পাঠদানের সুযোগ করে দেয়া ও বিদ্যালয়ের মাঠের সংলগ্ন পুকুর ভরাট ও ছোট ছোট কচিকাঁচা শিশুদের পাঠদানে আসা যাওয়ার রাস্তাটি সংস্কারের জন্য আবেদন জানিয়েছেন অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুর রশিদ গাজী ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্য বৃন্দ এবং অভিভাবকরা।

জানাগেছে, একটি টিনসেটের ভবনে অত্র বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষিকারা কোমলমতি শিশুদের পাঠদান করে আসছিলেন। প্রতিষ্ঠাতা মরহুম মোক্তার আলী গাজী ১৯৯৪ ইং সালে বিদ্যালয়টি স্থাপিত করেন এবং ২০১৪ ইং সালে বিদ্যালয়টি সরকারি ভাবে জাতীয় করন করা হয়।

গত ২০ মে ঘুর্ণিঝড় আম্ফানের তান্ডব এতটা ভয়াবহ আঘাত হানে পুরো বিদ্যালয় ভবনের টিনের চাল,বেড়া ঝড়ের আঘাতে উড়িয়ে নিলে ভিতরের আসবাব পত্র সহ সকল কিছু নষ্ট হয়ে যাওয়ায় বর্তমানে জুন পর্যন্ত সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশনার পড়ে কোমলমতি শিশুদের পাঠদানের সুযোগ একমাত্র খোলা আকাশের নিচে তাই দ্রুত প্রধানমন্ত্রীর উর্ধতন কর্মকর্তাদের ও পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক এর মাধ্যমে সকলের নিকট আকুল আবেদন যাহাতে বিদ্যালয়টি দ্রুত সংস্কারন ও একটি পাকা ভবন নির্মাণ করে কোমলমতি শিশুদের পাঠদানের সুযোগ করে দেয়ার।

এছাড়াও স্কুলের সামনের মাঠ ও একটি পুকুর রয়েছে যা অতিবৃষ্টি হলে আসা যাওয়ার রাস্তাটি পানিতে ডুবে যায়। এজন্য শিশুরা অনেক সময় ভিজে ক্লাসে আসতে হয় এবং পুকুরটির কারনে শিশুদের প্রানহানির ঝুঁকিও রয়েছে বলে জানান অত্র বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম মোক্তার আলী গাজীর ছেলে প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুর রশিদ গাজী, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য বৃন্দ ও কোমলমতি ছাত্র ছাত্রী সহ অত্র এলাকাবাসী।

তারা আরও বলেন, আমাদের এলাকায় কোন সাইক্লোন সেল্টারও নেই তাই বন্যায় ঝুঁকিপুর্ন পরিবারের গুলোর নিরাপত্তার জন্য কোন আশ্রয় কেন্দ্র নেই।যদি একটি পাকা ভবন নির্মাণ হয় তাহলে শিশুদের পাঠদান সহ জনগণের আশ্রয় কেন্দ্র তৈরি হয়।

এ বিষয়ে লাউকাঠী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শহিদুল ইসলাম খোকন বলেন, বিদ্যালয়ের টিনসেট ভবন সহ সকল আসবাব পত্র নষ্ট হয়ে গেছে ঘুর্ণিঝড় আম্ফানের তান্ডবে।এবং এই বিদ্যালয়টি ২০১৪ ইং সালে জাতীয় করন করা হয়েছে। এখন একটি পাকা ভবন নির্মাণ হলে কোমলমতি শিশুদের পাঠদানের সুযোগ ও বন্যা পরিস্থিতিতে সাইক্লোন সেল্টার আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে জনগণের আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে সুবিধা পাবে বলে জানান এবং তিনি ও জেলা শিক্ষা অফিসার ও জেলা প্রশাসক এর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন জানান অতি দ্রুত এখানে একটি পাকা ভবন নির্মানের এজন্য উর্ধতন কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ

Spoken English কোর্স