ফেসবুকের আদলে বাংলাদেশে তৈরি প্রথম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম
এইমবুক। গুগল প্লে-স্টোরে এইমবুক ডট নেট এর অ্যাপস চলে এসেছে কয়েকদিন আগে। ফেসবুকের মতই এতে রয়েছে নতুন নতুন সব ফিচার।

ফেইসবুকের মতই ইন্টারফেস নিয়ে তৈরি এইমবুক। যা নিয়ে প্রত্যাশা রয়েছে অনেক। সবকিছুই ফেসবুকের মত করে তৈরি করা এই এইমবুক এ র ইন্টারফেসের কালার রাখা হয়েছে নীল। ফেসবুকের মত বাকি সব সিস্টেমই রয়েছে তবে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট বাটন এর জায়গায় আছে ফলোয়ার সিস্টেম। ব্যবহারকারীর জন্য রয়েছে পয়েন্ট অপশন। অ্যাকাউন্ট করলেই পাবেন পয়েন্ট। তারপর আপনার দৈনন্দিন অ্যাক্টিভিটির উপর পাবেন পয়েন্ট। পয়েন্টের উপর ভিত্তি করে আপনার প্রোফাইলটি প্রো প্রফাইল কিনা তা নির্ণীত হবে। ইমেইল ব্যবহার করে ইউজার নেম, জেন্ডার, জন্ম তারিখ প্রভৃতি প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে প্রথমে এইমবুকে নিবন্ধন করে নিতে হবে। ফেইসবুকের মত আপনি আপনার প্রোফাইল পিকচার, কভার ফটো যোগ করতে হয়!

চীন, রাশিয়া কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ফেসবুকের উপর নির্ভরশীল নয়।
বরং তাদের রয়েছে নিজস্ব সামাজিক যোগাযোগ সাইট। চীনে তো ফেইসবুকই নিষিদ্ধ। অর্থাৎ এ সব দেশ ফেইসবুকের উপর নির্ভরশীল নয়। তাই নিজস্ব যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে বাংলাদেশীদের জন্য এইমবুক নিঃসন্দেহে একটি ভাল মাধ্যম।

বাংলাদেশী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে এইমবুক দ্রুতই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে, আর একদিন হয়তো ফেসবুকের পরিবর্তে সবাই এই এইমবুক এর মাধ্যমে যোগাযোগ রক্ষা করবে।