শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৩৭ পূর্বাহ্ন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পেঁয়াজ শূণ্য পাইকারি বাজার,

আসাদুজ্জামান আসাদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

প্রতি ঘন্টায় দাম বাড়ছে পেঁয়াজের।গত দুই দিনের ব্যবদানে দ্বিগুন দামের মুখ দেখল পেঁয়াজ। আজ বৃহস্পতিবার ব্রাহ্মণবার বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ প্রায় ৩০থেকে ৪০ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৭৫থেকে ৮৫ টাকা কেজি দরে। সকালেও কোনো কোনো বাজারে দাম ছিল ৭২ টাকা। কোনো কোনো খুচরা বাজারে দাম ৮৫ টাকা পর্যন্ত উঠেছে।
গত মঙ্গলবার থেকে অস্থির হয়ে উঠে পেঁয়াজের বাজার। ১৪ সেপ্টেম্বর পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ ঘোষণা করে ভারত। বাংলাদেশ আমদানির ক্ষেত্রে ভারতের ওপরই নির্ভরশীল। ফলে দেশের বাজারে লাফিয়ে লাফিয়ে দাম বাড়তে থাকে। ভারতীয় পেঁয়াজ এখন বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকার কাছাকাছি দরে। অবশ্য বাজার তদারকি ও হুজুগ শেষের পর দাম আবার কিছুটা কমে। ক্রেতার কাছে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৮০ থেকে ৯০ টাকা দরে বিক্রি করছেন খুচরা বিক্রেতা।
আজ দুপুরে জগৎবাজারে গিয়ে দেখা যায়, এক পাল্লা (৫ কেজি) পেঁয়াজ ৪০০ টাকা দর হাঁকছেন বিক্রেতারা। বেশির ভাগ ক্রেতা মলিন মুখে এক কেজি পেঁয়াজ কিনে ফিরে যাচ্ছেন। দাম কেন বেড়েছে জানতে চাইলে, বেশির ভাগ বিক্রেতা জানান, বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজ নেই। দেশি পেঁয়াজের মজুতও প্রায় শেষ। বাজার ঘুরে দেখা যায়,দেশি পেঁয়াজ নেই বললেই চলে বাজারে। কাইশ্রীপাড়ার বাসিন্দা ক্রেতা ফাতেমা জানান, বাড়িতে একটাও পেঁয়াজ নেই। সকালে পেঁয়াজ কিনতে বাসার পাশের দোকানে গিয়ে শোনেন এক কেজি পেঁয়াজ ৯০ টাকা। পরে জগৎ বাজারে আসেন। এখান থেকে ৭৫টাকায় এক কেজি পেঁয়াজ কিনে বাড়ি ফিরেছেন তিনি।
যদিও গতকাল এই পেঁয়াজ ৫০ থেকে ৫৫টাকা দরে বিক্রি হয়েছে বলে জানান দোকানি। পাইকপাড়ার আরেক ক্রেতা জাবেদ বলেন, সকালে ৭০ টাকা দিয়ে এক কেজি পেঁয়াজ কিনেছিলাম। দাম বাড়বে শুনে আবার ওই দোকানে যাই, দোকানি বলে ১ কেজি এখন ৮০ টাকা। এই হচ্ছে অবস্থা। আমদানিকারক ও পাইকারি বিক্রেতা সেলিম খান বলেন, চাহিদার বিপরীতে জোগান একদম কম। দেশি পেঁয়াজ এখনো ওঠেনি। ভারতীয় পেঁয়াজের আমদানি নেই। সব মিলিয়ে অস্থির বাজার।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কার্যালয়ের নির্বাহী মেজিস্ট্রেট সন্দিপ তালুকদার বলেন, ‘প্রায়ই পেঁয়াজের বাজারে আমাদের ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা হয়ে থাকে। পেঁয়াজের বাজারে কোন সিন্ডিকেট থাকলে, খোঁজখবর নিয়ে ওইসব ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
বর্ডার বাজারের মোহাম্মদ জসিম নামে এক দোকানদার বলেন, গতকাল দোকানে পেঁয়াজ বিক্রি করেছি গতপরশু ৬০ টাকায়। বিকালে পাইকারি দোকানে পেঁয়াজ কিনতে ফোন করে জানতে পারি দাম বেড়েছে। প্রতি কেজি পেঁয়াজ পাইকারি দরে কিনতে হয়েছে ৬৫ টাকায়। গাড়ী ভাড়াসহ প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করতে হচ্ছে খুচরা বাজারে ৮০ টাকা দরে। জসিম বলেন, আগে প্রতিদিন দোকানে দুইশ থেকে আড়াইশ কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হতো। এখন বিক্রি করছি ২০ থেকে ৩০ কেজি পেঁয়াজ। পাইকাররা তাদের বলছেন পেঁয়াজ আসছেনা তাই পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির কারণ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ