বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ০১:৫৩ অপরাহ্ন

মানবিক সেবায় ইবির শিক্ষক-কর্মকর্তাবৃন্দ

কে এম মাহফুজুর রহমান, কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের বিস্তার ও উদ্ভুত পরিস্থিতি মোকাবেলায় ‘ইবির করোনা প্রতিরোধ সেল’ ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ ব্যক্তিগত উদ্যোগে দু:স্থ মানুষ ও শিক্ষার্থীদের সহযোগিতায় নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তাবৃন্দ এক দিনের বেতন এই খাতে দান করেছেন। অনেক স্বেচ্ছাসেবী ও ছাত্র সংগঠন, ছাত্রলীগ, ছাত্র ইউনিয়ন, ছাত্রদল যৌথ ও ব্যক্তিগত উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহযোগিতা ও জীবাণুনাশক চিকিৎসা উপকরণ বিতরণ করছেন।

বিশ্ববিদ্যালয় ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়,‘ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগ ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কারিগরী সহযোগিতায় উৎপাদিত হয়েছে জীবাণুনাশক উপকরণ। উৎপাদিত এসব উপকরণ বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শবর্তী এলাকা শেখ পাড়া বাজার, ভাদালিয়া বাজার, মধুপুর ও বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক এলাকায় ভাইরাস প্রতিরোধী সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

এছাড়াও চিকিৎসা কেন্দ্রে সেবা দিতে চিকিৎসকবৃন্দ নিরলসভাবে কাজ করছেন। বিশ্ববিদ্যালয় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সেলের আহবায়ক প্রফেসর ড. পরেশ চন্দ্র বর্ম্মণ বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক এলাকায় অবস্থান করেই এসব কাজের তদারকি
করেছেন বলে জানা যায়।

এদিকে শিক্ষার্থীদের সহযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বেশ কিছু শিক্ষক ব্যক্তিগত উদ্যোগে আর্থিক সহযোগিতায় (০১৭১৫-৮৪৮৮২৮, ০১৮৪১-১২১২১১, ০১৯২৪১২১২১১, ০১৭৫৬-৬১৩১৬১) এসব নাম্বারে যোগাযোগ করতে বলেছেন। মানবিক এই বিপর্যয়ে মানুষের সেবা করা অনেক বড় সৌভাগ্যের ব্যাপার বলে শিক্ষকরা জানান। বিশেষত শিক্ষার্থীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের একটা কেন্দ্রীয় ফান্ড গঠন করা যেতে পারে বলে শিক্ষকবৃন্দ অভিমত ব্যক্ত করেন। প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান বলেন,‘ সংকটাপূর্ণ মহা এই দুর্যোগময় মুহূর্তে একজন শিক্ষককের অনেক দায়িত্ব রয়েছে। আমাদের শিক্ষার্থীদের পারিবারিক স্বচ্ছলতা বিবেচনায় ক্ষুদ্র পরিসবে আমরা কিছু আর্থিক সহযোগিতার কাজ করছি। এই ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের একটা ফান্ড থাকলে ভাল হতো।’

করোনা প্রতিরোধ সেলের আহবায়ক প্রক্টর প্রফেসর ড. পরেশ চন্দ্র বর্ম্মণ বলেন,‘ক্যাম্পাসের জরুরী সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তিবর্গ ও পার্শবর্তী এলাকাবাসীর মাঝে, মাস্ক, পিপিই, হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং জীবাণুনাশক উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. রাশিদ আসকারী বলেন,‘ আমি সর্বাক্ষণিক ক্যাম্পসেই অবস্থান করছি। বিশ্ববিদ্যালয় কে করোনা ভাইরাসের প্রকোপমুক্ত করতে করোনা প্রতিরোধ সেল গঠন করা হয়েছে। সম্পূর্ণ নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার, জীবাণুনাশক স্প্রে এবং মাস্ক তৈরী করে বিতরণের ব্যবস্থা করেছি। ইবি পরিবারের দু:স্থ ও অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণের ব্যবস্থা নিয়েছি। জাতির এই মহাদুর্যোগময় পরিস্থতিতে সরকারের কর্মসূচীর সাথে একাত্ম হয়ে কাজ করছি।’


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ