শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০১:৩০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রপ্তানি আয়ের অন্যতম উৎস হবে আম: কৃষিমন্ত্রী খাবার না থাকলে আমাকে জানান, আমি বাড়ি বাড়ি খাবার পৌছে দিব: এমপি আনার অমুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফনের অভিযোগ স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের কমলগঞ্জে হিন্দু ছাত্র পরিষদের দ্বিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত ময়মন‌সিং‌হের শম্ভুগ‌ঞ্জে প্রায় শতা‌ধিক দোকানে ধর্মঘট শেরপুরের শ্রীবরদীতে ১’শ পিস ইয়াবাসহ যুবক গ্রেফতার সাংসদ কন্যা ডরিন এর নেতৃত্বে রোজা রেখেও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী এক কৃষকের ধান কেটে দিয়েছে ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ করোনা সঙ্কটে আবারো অসহায় মানুষের পাশে সাংসদ কন্যা ডরিন সাভারে দুই নারী ধর্ষণের শিকার, আটক ২ ভারত বাংলাদেশ সীমান্তে তিস্তায় ডুবে একজনের মৃত্যু

মানিকগঞ্জে ইভ্যালীর নামে প্রতারণা: ৩৯ লক্ষ টাকাসহ আটক ৩

 মিলন মাহমুদ (মানিকগঞ্জ)

মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর থেকে ডিজিটাল বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ই-ভ্যালি ইকমার্স নামে একটি প্রতিষ্ঠানের তিন কর্মীকে প্রায় ৩৯ লাখ টাকাসহ আটক করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

সোমবার (২৪ আগষ্ট) দুপুরে উপজেলার বলধারা ইউনিয়নের পারিল বাজারে অবস্থিত প্রতিষ্ঠানটির স্থানীয় অফিস থেকে তাদের আটক করা হয়। অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমান আদালতের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট রুনা লায়লা।

আটককৃতরা হলো-ই-ভ্যালি ইকমার্স-এর স্থানীয় সিংগাইর উপজেলার ব্যবস্থাপক বিপ্লব হোসেন (২৪), সহকারি ব্যবস্থাপক রবিদুল ইসলাম (২৭) ও অফিস সহকারি মো: জামাল হোসেন (৩৮)। তারা ডিজিটাল বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ই-ভ্যালির নামে শাখা অফিস খোলে প্রতারণার মাধ্যমে গ্রাহকদের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল।

সিংগাইর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুনা লায়লা বলেন, উপজেলার বলধারা ইউনিয়নের পারিল নোয়াদ্দা গ্রামের ফজল হকের ছেলে কামাল হোসেন তার স্ত্রী হেনা আক্তার স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন একটি দ্বিতল ভবনে ডিজিটাল বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান “ই-ভ্যালির” শাখা অফিস “ই-ভ্যালি ইকমার্স” নামে একটি অফিস খোলে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিল। উপজেলার মানুষদের লোভনীয় অফার দিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে সহজ সরল লোকজনের কাছ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল।

এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে এমন অভিযোগ পেয়ে সোমবার দুপুরে ওই অফিসে অভিযান চালানো হয়। অভিযানের খবর পেয়ে প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী পরিচালক হেনা আক্তার ও তার স্বামী কামাল হোসেন পালিয়ে গেলেও তাদের ৩ কর্মী আটক করা হয়। এসময় ৩৮ লাখ ৮৯ হাজার ৩০০ টাকা, ৫টি মুঠোফোন সেট ও প্রতিষ্ঠনটির মানি রিসিট ও প্রযোজনীয় কাগজপত্র জব্দ করা হয়।

সিংগাইর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুনা লায়লা আরো বলেন, আটকদের থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে পরামর্শক্রমে আটক ব্যক্তিদের নামে মানিলন্ডারিং আইনে মামলা নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এ দিকে এ খবর প্রচারের পর ইভ্যালীর পক্ষ হতে জানানো হয় -মানিকগঞ্জ জেলায় তথা সারাদেশে ইভ্যালীর কোন শাখা অফিস বা আঞ্চলিক অফিস নামে কোন অফিস নেই। ঢাকার ধানমন্ডিতে তাদের একটাই অফিস। আটককৃতরা তাদের নিয়োগকৃত কর্মী নয়। ইভ্যালীর মান ক্ষুন্ন করতে তারা প্রতারণা করার চেষ্টা চালাচ্ছে। তাদের উপযুক্ত শাস্তি দাবি করে সিংগাইর প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানানো হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ

Spoken English কোর্স