রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১০ অপরাহ্ন

ময়মনসিংহে গার্মেন্টস শ্রমিকদের হামলার শিকার এএসপি স্বাগতা ভট্টাচার্য্য
মমিনুল ইসলাম মমিন, ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি / ৬৮৯ ভিউ
সর্বশেষ আপডেট : রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ ও মোকাবেলায় সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়ন করার লক্ষে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ত্রিশাল ও ফুলবাড়ীয়া সার্কেলের এএসপি স্বাগতা ভট্টাচার্য্য ও ত্রিশাল থানার ওসি আজিজুর রহমান কতিপয় দুষ্কৃতিকারীদের হামলায় আহত হয়েছেন।

সরজমিনে গিয়ে জানাগেছে, গত (২৭ এপ্রিল) এএসপি স্বাগতা ভট্টাচার্য্য ও ত্রিশাল থানা অফিসার ইনচার্জ আজিজুর রহমানের নেতৃৃত্বে ত্রিশাল থানা পুলিশ ঢাকা-ময়মনসিংহ মহা সড়কে অন্য জেলার যাত্রীবাহি যান চলাচলে বাধা দেয়। ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বৈলর বাজারে অটো রিকসা পিকআপ-ভ্যান চালক শ্রমিকরা ও ঢাকাগামী গার্মেন্টস কর্মীরা জড়ো হয়ে বৈলর মোড়ে রাস্তায় ব্যরিকেট দেয়।

এসময় পুলিশ গামেন্টস কর্মীদের মাস্ক ব্যবহার করা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বাড়ী ফিরে যাওয়ার কথা বললে গামেন্টস কর্মী ও শ্রমিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশের উপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। শ্রমিকদের ছোড়া ইট-পাটকেল নিক্ষেপে এএসপি ত্রিশাল ফুলবাড়িয়া সার্কেল স্বাগতা ভট্টাচার্য্য ও ত্রিশাল থানা অফিসার ইনচার্জ আজিজুর রহমান আহত হন। আহত এএসপি ত্রিশাল ফুলবাড়িয়া সার্কেল স্বাগতা ভট্টাচার্য্যকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করার পরে চিকিৎসা নিয়ে বাসায় চলে আসেন এএসপি স্বাগতা ভট্টাচার্য্য। ত্রিশাল থানার আজিজুুর রহমানকে ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

ত্রিশাল থানার অফিসার ইনচার্জ আজিজুর রহমান জানান, জীবন ঝুঁকি নিয়ে সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য এএসপি সার্কেল স্যারের নেতৃত্বে আমরা সকাল থেকেই ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের কাজির শিমলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে অন্য জেলা উপজেলা হতে যানবাহনে অতিরিক্ত যাত্রী চলাচল না করতে পারে সে জন্যে টহল দিচ্ছিলাম। সম্মুখ বৈলর সিএনজি অটো রিক্সা শ্রমিকরা ও ঢাকাগামী গামেন্টস শ্রমিকরা মহাসড়ক ব্যরিকেট দিলে আমরা সরকারের নির্দেশনা মেনে বাড়ীতে চলে যাওয়ার কথা বললে বিক্ষুদ্ধ গামেন্টস কর্মী ও শ্রমিকরা ইট পাটকেল ছোড়ে আমাদের আহত করে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক অটো শ্রমিক জানান, মহাসড়কে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে ট্রাক চলাচল করছে আমরা যাত্রী নিয়ে গেলে অপরাধ কোথায়। আমরা কিভাবে সংসার চালাবো।

এ বিষয়ে ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামান পিপিএম জানান, পুলিশ অফিসাররা সামান্য আঘাত পেয়েছে, এখন ভাল আছে। হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Shares