শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০৭:৪৯ পূর্বাহ্ন

রাজবাড়ী গোয়ালন্দ উপনির্বাচনে নৌকা প্রতীকে জনপ্রিয়তায় শীর্ষে মোস্তফা মুন্সী !

কবির হোসেন,রাজবাড়ী

রাজবাড়ী গোয়ালন্দ উপজেলার উপনির্বাচনে জন প্রিয়তায় শীর্ষে রয়েছেন গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামিলীগের অন্যতম সহ সভাপতি ও নৌকা প্রতিকে মনোনীত প্রার্থী সমাজ সেবক ও শিল্পপতি মোস্তফা মুন্সী।

উল্লেখ্য গোয়ালন্দ উপজেলার নির্বাচিত চেয়ারম্যান এবিএম নুরুল ইসলাম গত ১৭ অক্টোবর-১৯ সালে মৃত্যুবরণ করলে উপজেলায় উপ-নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু হয় ১৬ই ফেব্রুয়ারি-২০ নির্বাচনী তফসীল ঘোষনা করা হয়।এ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মোস্তফা মুন্সী নোকা প্রতিক পান।

এদিকে নির্বাচনী তফসীল ঘোষনার পর থেকেই নৌকা প্রতিকে সমাজ সেবক মোস্তফা মুন্সীকে বিজয়ী দেখতে চান জনগন। প্রতিক বরাদ্দের পর শুরু হয় প্রচারনা।

রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী এরাদত আলী নির্বাচনী প্রচারনায় বলেন, গোয়ালন্দ বাসী নৌকার ঘাটি। গোয়ালন্দ উপজেলায় জাতীয় নির্বাচনে নৌকা পরাজিত হয় নি। আমি আশা রাখি প্রধানমন্ত্রীর হাত কে শক্তিশালী করার লক্ষে আগামী ২৯ তারিখে গোয়ালন্দ উপ নির্বাচনে নৌকায় আপনারা ভোট দিয়ে নৌকাকে অবশ্যই বিজয়ী করবেন।

রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকীর আঃ জব্বার নৌকার নির্বাচনী প্রচারনায় অংশ গ্রহন করেন। তিনি বলেন আমি এ গোয়ালন্দ উপজেলায় নৌকা প্রতিকে চেয়ারম্যান হয়েছিলাম। নৌকা প্রতিক গোয়ালন্দ থেকে কখনও পরাজিত হয় নি। জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজবাড়ী থেকে নৌকা প্রতিকে ভোট কম পেয়েছিলো,কিন্তু গোয়ালন্দবাসী নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়েছিলো অনেক।

নৌকা প্রতিক পেয়ে গোয়ালন্দ উপ নির্বাচনে প্রার্থী সমাজ সেবক মোস্তফা মুন্সী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ভালোবেসে আমার উপর ভরসা করে নৌকা প্রতিক আমাকে দিয়েছেন। আমি আশা করি সে বিশ্বাস আমি রক্ষা করবো। জনগণ আমার সাথে আছে আশা করি সাথে থাকবে। আসন্ন ২৯শে মার্চ নৌকা প্রতিকে অসংখ্য ভোট পেয়ে আমি বিজয়ী হব।

নির্বাচনী এলাকা সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, গোয়ালন্দ উপজেলায় ১টি পৌরসভা ও ৪টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত এ উপজেলায় মোট ভোটার ৯১ হাজার ৫৪৪ জন। এরমধ্যে ৪৫ হাজার ৫০০ মহিলা ও ৪৬ হাজার ৪৪ জন পুরুষ ভোটার।

এ নির্বাচনে প্রার্থী রয়েছেন তিন জন, আওয়ামীলীগ থেকে মনোনীত নৌকা প্রতিকে সমাজ সেবক মোস্তফা মুন্সী, বি এন পি থেকে মনোনীত মোঃ মাহুব আলম, ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ঘোড়া মার্কায় নুরুল ইসলাম মন্ডল । এই নুরুল ইসলাম মন্ডল আওয়ামীলীগের কর্মী হয়েও গত দৌলতদিয়া ইউনিয়ন নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে ভোট যুদ্ধে হেরে যায়। দল থেকে তাকে বহিষ্কারও করা হয় নিয়ম ভঙ্গের কারনে। এই নুরু মন্ডলের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী হত্যা সহ বিভিন্ন অভিযোগ থাকায় এবার এবার উপজেলা নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়া এই নুরু মন্ডলকে সাধারণ জনগন সহ কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা বয় কটের সিদ্ধান্ত নেয়।

গোয়ালন্দ উপজেলার উজান চর এলাকায় ঘুরে দেখা যায় সাধারণ লোকজন নৌকা প্রতিক পাওয়া সমাজ সেবক মোস্তফা মুন্সি কে ভোট দিয়ে তাদের নেতার আসনে বসাতে চান।

এবার বন্যায় অধিকাংশ ঘর বাড়ী নদীতে বিলীন হয়ে যায়। বান বাসী এই অসহায় মানুষের পাশে এ সমাজ সেবক সর্বাত্মক সহযোগিতা’র হাত বাড়িয়ে দেন। অসহায় মানুষ কে সাহায্য সহযোগীতা , শীতার্তদের হাতে শীত বস্ত্র বিতরণ সহ গৃহহীন মানুষের আবাসন ব্যাবস্থা প্রদানে এ সমাজ সেবক গুরুত্ব ভুমিকা পালন করে গেছেন। তাই আগামী গোয়ালন্দ উপজেলার উপনির্বাচনে নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়ে বিজয়ের মালা গলায় পড়ানোর জন্য সাধারণ মানুষসহ তৃণমূলের আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা শপথ করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ