রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বগুড়ায় ফেনসিডিলসহ আটক ২ সাভারে অবৈধ গ্যাস লাইন বিস্ফোরণ, চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুইজনের মৃত্যু সাভারে নীলা রায় হত্যাকাণ্ডের মূল হোতা মিজানসহ ২ জন আটক আবারো জাগ্রত সর্বহারা পার্টি বিভিন্ন মহলে চাঁদাদাবী সাভারে স্কুলছাত্রী নীলা হত্যাকান্ডে মিজানের বাবা মা আটক সাতক্ষীরায় পানিবন্দী মানুষের অবস্থান কর্মসূচি ও মানববন্ধন তুরাগ নদী থেকে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার সাভার, আশুলিয়া ও ধামরাইয়ে বিভিন্ন অপরাধীদের নামে ৪’শ ২৮টি মামলা নন্দীগ্রামে খাস পুকুরে পানি নিষ্কাশন নিয়ে মারামারি, আহত ২ শেকৃবিতে রেজিস্ট্রারকে চলতি ভিসির দ্বায়িত্ব দেওয়ায় বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির নিন্দা

সিমেন্টের বস্তার ঘরে জীবনযাপন

আব্দুল আলীম খান, পটুয়াখালী প্রতিনিধি

পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার, দশমিনা সদর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের উত্তর লক্ষ্মীপুর গ্রামে দীর্ঘ ১০ বছর অভাব-অনাটনের তাড়নায় সিমেন্টের বস্তার ঘরে দীর্ঘ বছর জীবন যাপন করে আসছে এখন পর্যন্ত নজরে আসেনি কারো এই হতদরিদ্র পরিবারটি।

জানা গেছে,দশমিনা সদর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের উত্তর লক্ষীপুর গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দা হতদরিদ্র পরিবারের মৃত চানমিয়া হাওলাদারের ছেলে কাঠমিস্ত্রি মোঃ মাহফুজ হাওলাদার।

কাঠমিস্ত্রি মোঃমাহফুজ হাওলাদারের ৩ মেয়ে, বড় মেয়ে পঞ্চম শ্রেণীতে পড়ে,মেজো মেয়ে তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ে এবং ছোট মেয়ের বয়স মাত্র তিন বছর।

অভাব অনটনের মধ্যে থেকেও তিনি তার মেয়েদের লেখাপড়া চালিয়ে আসছে, দিন আনে দিন খায়!কোনদিন খেতেও পারে না, অভাব-অনাটন লেগেই আছে এখনও অপেক্ষায় আছে ভাগ্য পরিবর্তনের।

হতদরিদ্র কাঠমিস্ত্রি মোঃমাহফুজ হাওলাদারের দীর্ঘ বছরের অবস্থা জানান, ঝড়-বৃষ্টি শীতে বেঁচে আছি এই আর কি! ভিটেমাটি ছাড়া আর কোন অর্থ-সম্পদ নেই এইবার কনকনে শীতে কোনমতে বেঁচে আছি ছোট মেয়েটির শীতে মারাত্মক ঠান্ডা লেগে টাইফেট হয়েছিল দীর্ঘদিন হসপিটালে ভর্তি অবস্থায় ছিল মানুষের কাছ থেকে দার এনে ঋণী হয়েছে, সাহায্যের জন্য ঘুরে বেরিয়েছি এই মহলে সেই মহলে কিন্তু কোন লাভ হয়নি কেউ ফিরেও তাকায়নি আসলে এটাই সত্য গরিবের আল্লাহ ছাড়া কেউ নাই।

আজ আমি অসহায় তিনটি কন্যা সন্তান নিয়ে আজ আমি বিপাকে। দিন আনি দিন খাই! কোন দিন আবার না খেয়েও থাকতে হয় মেয়েদের মুখের দিকে তাকিয়ে।

সরকারের এত অনুদান এত পূর্ণবাসন প্রকল্প আসে কিন্তু আমার দিকে ফিরে কেউ তাকায়নি।

আমি সরকারের জনপ্রতিনিধি ও অর্থবিত্তমান ব্যক্তিদের কাছে আবেদন করছি যাতে করে আমার এই সিমেন্টের বস্তার ঘরটি যদি নির্মাণ করে দেয় তাহলে আমি আমার স্ত্রী ও তিন মেয়েকে নিয়ে একটু শান্তিতে জীবন যাপন করতে পারব কষ্ট হলেও তাদের লেখাপড়া চালিয়ে যেতে পারবো। এই সাহায্য টুকু আমাকে আপনারা করুন।

দশমিনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইকবাল মাহমুদ লিটন জানান, তার নলেজে নেই,তিনি ওখানের বাসিন্দা কিনা ভোটার কিনা তথ্য নিয়ে জানবে, সে যদি হতদরিদ্র হয় তাহলে সরকারের উর্ধ্বতম কর্মকর্তার পক্ষ থেকে সহযোগিতা পাওয়া উচিত এবং তার পক্ষ থেকেও সহানুভূতি দেখাবেন বলে তিনি জানান।

দশমিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাঃ তানিয়া ফেরদৌস জানান, মুজিব শতবর্ষে শতভাগ আবাসনের নিশ্চয়তার অঙ্গীকার কেহ গৃহহীন থাকবে না,যদি তিনি বাস্তবে গৃহহীন হয়ে থাকে তাহলে তাকে একটি ঘরের ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে তিনি আরো জানান এব্যাপারে চেয়ারম্যানের সাথে দ্রুত যোগাযোগ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ